রমেল চাকমা হত্যাকাণ্ডে সেনাবাহিনীকে রাষ্ট্র দায়মুক্তি দেবে, ইতিহাস দেবে না

bipul

।। ফাইল ফটো: বিপুল চাকমা।।

আদিবাসীদের সঙ্গে যে আচরণ বাংলাদেশ সেনাবাহিনী করছে বছরের পর বছর ধরে তার সঙ্গে হানাদার পাকিস্তান সেনাবাহিনী ১৯৭১ সালে সমতলের বাঙালীদের সঙ্গে যা করেছিল তার কোন পার্থক্য আছে কি? নেই। কাগজে-কলমে সেনাশাসন থেকে বাংলাদেশ বেরিয়ে এসেছে ১৯৯১ সালে অনুষ্ঠিত পঞ্চম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে, কিন্তু রাঙামাটি-বান্দরবান-খাগড়াছড়ি এ তিন জেলায় তার তেমন কোন প্রভাব পড়েনি। বরঞ্চ পাহাড়কে করা হয়েছে আরো বেশি সামরিক, সমরাস্ত্রে সুসজ্জিত, আরোপ করা হয়েছে নিত্যনতুন নিয়ন্ত্রণমূলক আইন, তৈরি হয়েছে নতুন নতুন সেনা ক্যাম্প, সেনা জোন। একের পর এক বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে পাহাড়ী ছাত্রনেতারা।

বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ এর নেতা ও এইচএসসি পরীক্ষার্থী আংশিক দৃষ্টি প্রতিবন্ধী রমেল চাকমাকে ৫ এপ্রিল মেজর তানভির-এর নেতৃত্বে একদল সেনাসদস্য তাকে টেনেহিঁচড়ে রাঙামাটির নানিয়ার চর ৭ই বেঙ্গল সেনাজোনে নিয়ে দিনভর তার উপর অমানুষিকভাবে শারীরিক নির্যাতন করে। সেদিন রাতে মৃতপ্রায় তাকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে দায়ভার থেকে মুক্তি পাওয়ার চেষ্টা করলে স্থানীয় থানাপুলিশ অস্বীকৃতি জানায়। উপজেলা সদর হাসপাতালও অস্বীকৃতি জানায়। পরে সরাসরি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়। সেখানে রমেল চাকমা সেনা হেফাজতে থাকা অবস্থায় মারা যান।
তিনি ছিলেন আংশিক দৃষ্টি প্রতিবন্ধীও। ডানচোখে তিনি দেখতে পেতেন না। এ বছর ২ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া এইচএসসি পরীক্ষার পরীক্ষার্থী ছিলেন তিনি। ৫ তারিখে যেদিন তাকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয় বাজার থেকে সেদিন তার পরীক্ষা ছিল না।

অভিযোগ উঠেছে তার লাশটিকে তার বাড়িতে নিতে দেয়নি সেনা সদস্যরা। তারা লাশটি ‍নিজেদের হেফাজতে নিয়ে রেখেছে বলে জানা গেছে। গতকাল ২০ এপ্রিল বিকালে রমেল চাকমার প্রাণহীন শরীরটি রাত ৮টার দিকে বুড়িঘাট বাজারে পৌঁছানোর পর তার আত্মীয়রা তা গ্রহণ করে বাড়িতে নিয়ে যেতে ট্রলারে (ইঞ্জিনচালিত নৌকা) উঠলে একদল সেনাসদস্য লাশ ট্রলারসহ লাশটি তাদের হেফাজতে নিয়ে নেয়।

37220

।। ফাইল ফটো: রমেল চাকমা ।।

১৯৯৬ এ হিল উইমেন্স ফেডারেশনের নেত্রী কল্পনা চাকমাকে তুলে নিয়েছিল সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা, তার লাশও পাওয়া যায়নি। বিচারের মুখোমুখি হতে হয়নি সেনাবাহিনীর সদস্যদের। পাহাড়ে আধিপত্য কায়েম রাখতে জমি দখল করে সেখানে বাঙালী সেটেলারদের ঢোকানো হয়। ১৯৭১ সালে পাকিস্তান সেনাবাহিনীকে পাকশাসকরা বলেছিল বাঙালী নারীদের ধর্ষণ করতে, যাতে তাদের গর্ভে আসা সন্তানেরা পাকিস্তানের কথা বলে। তার ধারাবাহিকতায় পার্বত্য চট্টগ্রামে বাঙালী মুসলমান সেটেলার মানে যারা বেআইনিভাবে আদিবাসীদের ভূমি দখল করে অবস্থান নিয়েছে তারা আদিবাসী নারীদের ধর্ষণ, অপহরণ ও লাঞ্ছনা করে নিয়মিত। কল্পনা চাকমা বাংলাদেশের আদিবাসীদের ওপর বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর করা জুলুমের আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত জ্বলন্ত উদাহরণ।

বাংলাদেশে মানবাধিকার কমিশন নামে একটি ঘুমন্ত সংগঠন আছে। যাদের কাজ হল মানবাধিকার বিষয়ক নানারকম অনুষ্ঠান করা। মানে তাদের কাজ হল ইভেন্ট করা। সমাজের মূলস্রোতে তাদের এমন কোন ভূমিকা বা কেসহিস্ট্রি কি আছে যে তারা বাংলাদেশে মানবাধিকার রক্ষায় সামান্যতম ভূমিকা রেখেছে? রাখেনি। তবুও রমেল চাকমার পিতা কান্তি চাকমা বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনকে একটি চিঠি লিখেছিলেন তার সন্তান ফেরত পাবার আশায়, যখন রমেল হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছিলেন।

গত ২৩ অক্টোবর পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের আরেক নেতা, কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক বিপুল চাকমাকে গ্র্রেফতার করা হয় যখন তিনি তার ক্যান্সারে আক্রান্ত অসুস্থ মাকে নিয়ে চট্টগ্রাম যাচ্ছিলেন। এ ঘটনায় তার মা আরো অসুস্থ হয়ে সেদিন রাতেই মারা যান। তার মায়ের শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে ৭ ঘন্টার প্যারোলে তাকে নিয়ে আসা হয় হাতে হাতকড়া পরানো অবস্থায়, তার সাথে লম্বা একটা দড়ির এক প্রান্তে পুলিশ দাঁড়িয়ে থাকে। বিপুল ছিলেন পায়ে লোহার বেড়ি ও গায়ে বুলেটপ্রফ জ্যাকেট পরিহিত অবস্থায়। সঙ্গে তিনগাড়ি পুলিশ, দুই গাড়ি সীমান্তরক্ষী সশস্ত্রভাবে তার বাড়ির আশেপাশে অবস্থান নেয়। একই সাথে খাগড়াছড়ির সমস্ত এলাকায় সেনাবাহিনী সশস্ত্র টহল দিতে শুরু করে।

পাহাড়ের রাজনৈতিক সংগ্রামে এমন অসংখ্য হরর গল্প বলা যায়। গল্প নয় সত্যি, ১৩ টি জাতিসত্তার মুক্তিযুদ্ধের কাহিনী একদিন লিপিবদ্ধে হবে মুক্তিযুদ্ধের দলিলপত্রের মতো খণ্ডে খণ্ডে। সেসব গ্রন্থে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীও হানাদার পাকিস্তান সেনাবাহিনীর চরিত্রে অভিনয় করবে। মুক্তিযুদ্ধের বছরে ১৯৭১ খ্রিস্টাব্দের ২৬শে ডিসেম্বর যে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী গঠিত হয়েছিল দেশকে শত্রুমুক্ত করে, সে সেনাবাহিনীর জন্য এর থেকে আর করুণ চরিত্র আর কি হতে পারে! এসব ঘটনায় রাষ্ট্র দায়মুক্তি দেবে, কিন্তু ইতিহাস কখনো দায়মুক্তি দেবে না।

 

 

Supporting Link: http://www.dailycht.com/news/details/bangladesh/37220

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s